মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩

শেয়ারবাজার থেকে উধাও আরও চার হাজার কোটি টাকা

শেয়ারবাজার থেকে উধাও আরও চার হাজার কোটি টাকা

শেয়ারবাজার থেকে উধাও আরও চার হাজার কোটি টাকা

শুক্রবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

 

 

২৭১ বার পড়া হয়েছে

প্রিয় পাঠকঃচারদিন পতন আর একদিন সূচকের বৃদ্ধির মধ্য দিয়ে (১৪-১৮ ফেব্রুয়ারি সময়ের) আরও একটি সপ্তাহ পার করল দেশের পুঁজিবাজার। তাতে সপ্তাহের ব্যবধানে পুঁজিবাজার থেকে বিনিয়োগকারীদের পুঁজি অর্থাৎ বাজার মূলধন উধাও হয়েছে চার হাজার কোটি টাকা।
এর ফলে টানা চার সপ্তাহ পুঁজিবাজারে দরপতন হলো। এই দরপতনের ফলে ২৫ হাজার কোটি টাকা উধাও হয়েছে বিনিয়োগকারীদের। এর মধ্যে সর্বশেষ দুই সপ্তাহে বিনিয়োগকারীরা সাড়ে ১৩ হাজার কোটি এবং প্রথম দুই সপ্তাহে ১৪ হাজার কোটি টাকার পুঁজি উধাও হয়েছে।
পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, বড় বড় প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের শেয়ার বিক্রির চাপে গত সপ্তাহের প্রথমদিন বোরবার বড় দরপতন হয়। তবে দ্বিতীয় দিন পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থার চাপে বাজারকে কৃত্রিমভাবে বাড়ানো হয়।সূএ ঢাকা পোষ্ট
তারপর বাকি তিনদিন টানা দরপতন হয়েছে। তারা বলছেন, পতনের ধারা অব্যহত থাকায় আরও পতনের শঙ্কা কাজ করছে বিনিয়োগকারীদের। এ কারণে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের দেখা-দেখি সাধারণ বিনিয়োগকারীরাও শেয়ার বিক্রি করেছেন।
তাই বাজারের দরপতন অব্যাহত ছিল। এই অবস্থা থেকে উত্তোলনে গুজবে কান না দেওয়ার পাশাপাশি বিনিয়োগকারীদের ভালো কোম্পানিতে জেনে-বুঝে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন তারা।
বাজার পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে ৩৭০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১২৭টির, দাম কমেছে ১২২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের। তার আগের সপ্তাহে দাম বেড়েছিল ২৪টির, দাম কমেছিল ২৫২টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ৯১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের।
বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বাড়লেও ডিএসইর প্রধান সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৯ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৪৭৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএস-৩০ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ১০৫ পয়েন্ট এবং ডিএসইএস সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২৪২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হয়েছে ১৬৯ কোটি ৪৫ লাখ ২১ হাজার ৫৬ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২৪৭ কোটি ৪৯ লাখ ৮৪ হাজার ১৯২ টাকা। লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বাড়ে ৯০টি কোম্পানির শেয়ারের, কমেছে ১৩০টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৫টির। বিদায়ী সপ্তাহে সিএসইর প্রধান সূচক ৬২ পয়েন্ট কমে ১৫ হাজার ৮২১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ট্যাগ :

আরো পড়ুন