বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

টেরিবাজারে টাউট বাটপারদের টেরিরিজম

টেরিবাজারে টাউট বাটপারদের টেরিরিজম

টেরিবাজারে টাউট বাটপারদের টেরিরিজম

সোমবার, ২১ নভেম্বর, ২০২২

 

 

১৮৭ বার পড়া হয়েছে

প্রিয় পাঠকঃচট্টগ্রামের টেরিবাজার দেশের কাপড়ের অন্যতম পাইকারি ব্যবসা কেন্দ্র।শতশত দোকানে এখানে প্রতিদিন কোট কোটি টাকার ব্যবসা লেনদেন হচ্ছে।কয়েক হাজার শ্রমিক কর্মচারি এখানে রুটি রুজিতে ব্যস্ত।এই বৃহৎ পাইকারি বাজারের সুনাম ও নান্দনিক পরিবেশকে কলুষিত করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নানাভাবে প্রতারনারর ফাঁদ বিস্তার করে সাধারন ব্যবসায়ীদের নিঃস্ব করছে।

মালামাল ক্রয় বিক্রয় ,দোকান বেচাকেনা,জায়গা, বহুতল ভবনের ফ্লোর সহ কোটি কোটি টাকার লেনদেনের এই বাজারে গড়ে উঠেছে এক শ্রেনীর দালাল,প্রতারক,সিন্ডিকেট ও সুবিধাবাদি চক্র।অপকর্ম করে ভিন্ন কৌশলে এরা পার পেয়ে যায়।পুলিশের দূর্নীতিপরায়ন কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে ,কখনো রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত বা সরকার দলীয় নেতা,পাতি নেতা বা গডফাদারদের নাম ভাঙিয়ে এসব প্রতারক চক্র সক্রিয় রয়েছে।

কাপড় ব্যবসার আড়ালে অনেকে টেরিবাজারে জমি, ফ্ল্যাট, দোকানের ব্রোকারি করছেন।এই বেচাকেনার মাঝেই রয়েছে প্রতারনা।একই দোকান, ফ্লোর একাধিক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করা হচ্ছে।
অবাক হতে হয় এসব অপকর্মতে ইন্ধন জোগায় পুলিশ।পুলিশের মদদ ও যোগসাজশের কারনে বিচার প্রার্থীেরাও বিভ্রান্ত হচ্ছেন।যে কারনে এই পাইকারি বাজারের শান্তি শৃংখলা ও ব্যবসার স্বাভাবিক পরিবেশ কলুষিত হচ্ছে।

জানা গেছে,টেরিবাজারে চিহিুত কিছু জামায়াত শিবিরের অর্থযোগানদাতা রয়েছে।এরা বর্তমানে কোন কোন নব্য আওয়ামীলীগ নেতার ছএছায়ায় টেরিবাজারে দোর্দন্ড প্রতাপে রাজত্ব করে চলেছে।

রাজাকারের প্রেতাত্মারা এখন বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামীলীগ বলতে অজ্ঞান।জয় বাংলা স্লোগান দিতে দিতে মুখে ফেনা তুলছেন।টাউট বাটপারদের টেরিরিজম কালচারের কারনে সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে এই পাইকারি বাজারের।

ট্যাগ :

আরো পড়ুন