মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩

গ্যাসের দাম ১১০% বৃদ্ধির প্রস্তাব পেট্রোবাংলার

গ্যাসের দাম ১১০% বৃদ্ধির প্রস্তাব পেট্রোবাংলার

গ্যাসের দাম ১১০% বৃদ্ধির প্রস্তাব পেট্রোবাংলার

সোমবার, ২১ মার্চ, ২০২২

 

 

৮৬ বার পড়া হয়েছে

প্রিয় পাঠকঃএকদিকে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি, অন্যদিকে ভর্তুকি সামাল দিতে গ্যাসের দাম বাড়ানোর চিন্তা করছে সরকার। সোমবার পাইকারি পর্যায়ে গ্যাসের দাম ১১০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে পেট্রোবাংলা।

সোমবার রাজধানীর বিয়াম ফাউন্ডেশনে নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান বিইআরসির উদ্যোগে গ্যাসের মূল্য নির্ধারণে গণশুনানি শুরু হয়। শুনানিতে গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট গ্যাসের গড় বিক্রয় মূল্য ৯ টাকা ৭০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ২০ টাকা ৩৫ পয়সা করার প্রস্তাব দেয় পেট্রোবাংলা।

এছাড়া মিশ্রিত গ্যাসের ক্রয় মূল্য ধরা হয়েছে ১৫ টাকা ৩০ পয়সা। পেট্রোবাংলা বলছে, দেশে গ্যাস উৎপাদনে ব্যয় বৃদ্ধি ও আমদানি খরচ বেড়ে যাওয়ায় পরিচালন ব্যয় বেড়েছে। যদিও বিইআরসির কারিগরি কমিটি বলছে, পাইকারি পর্যায়ে প্রতি ইউনিটের দাম ২৮ শতাংশ বাড়িয়ে তা হওয়া উচিত ১২ টাকা ৪৭ পয়সা। বর্তমানে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের পাইকারি মূল্য ৯ টাকা ৭০ পয়সা।

দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের যৌক্তিকতা তুলে ধরে বিতরণ কোম্পানিগুলো তাদের প্রস্তাবে বলেছে, এলএনজি আমদানি ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় চলতি অর্থবছরে দেশী-বিদেশী গ্যাস কেনা ও সরবরাহ, পরিচালন ব্যয়, ভ্যাট-ট্যাক্স এবং নানা চার্জ মিলিয়ে ৬৫ হাজার ২২৫ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এর মধ্যে বছরে ৮৭৮ কোটি ঘনফুট এলএনজি আমদানিতে ৪৪ হাজার ২২৫ কোটি টাকা ব্যয় হবে।

অর্থাৎ প্রতি ঘনমিটার এলএনজিতে ব্যয় ৫০ টাকা ৩৮ পয়সা, যার মধ্যে ক্রয়মূল্য ৩৬ টাকা ৬৯ পয়সা, আমদানি পর্যায়ে মূসক ৫ টাকা ৫০ পয়সা, অগ্রিম আয়কর ৭৪ পয়সা, ফাইন্যান্সিং ব্যয় ১ টাকা ৪৪ পয়সা, ব্যাংক চার্জ ও কমিশন ৫৯ পয়সা, রিগ্যাসিফিকেশন ব্যয় ১ টাকা ৮৬ পয়সা, অপারেশনাল ব্যয় ৫ পয়সা এবং ভোক্তা পর্যায়ে উৎসে কর ৩ টাকা ৫২ পয়সা (৭%)।

ট্যাগ :

আরো পড়ুন